বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৭:৩৮ পূর্বাহ্ন

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে অবস্থান নিয়ে ভারতের রাজ্যসভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্যাখ্যা

ভয়েসবাংলা প্রতিবেদক / ৭৭ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৪ মার্চ, ২০২২

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধে নিজেদের অবস্থানের ব্যাখ্যা দিয়েছে ভারত। বৃহস্পতিবার ভারতের রাজ্যসভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেছেন, এটি আমাদের সমস্যা নয়- এমন অবস্থান আমরা নেইনি। আমাদের অবস্থান হলো আমরা শান্তি চাই। ভারতের পররাষ্ট্রনীতির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় জাতীয় স্বার্থের ভিত্তিতে। আমরা আমাদের চিন্তা, দৃষ্টিভঙ্গি ও স্বার্থ দ্বারা পরিচালিত হই। তাই বাণিজ্যের সঙ্গে ইউক্রেন পরিস্থিতিকে সম্পর্কিত করার কোনও সুযোগ নেই।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, জয়শঙ্কর বলেছেন, রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতের পর অর্থ পরিশোধসহ বিভিন্ন বাণিজ্য সংশ্লিষ্ট বিষয় খতিয়ে দেখছে সরকার। তিনি আশ্বস্ত করেছেন, রাশিয়ার কাছ থেকে ভারতের অপরিশোধিত তেল আমদানির পরিমাণ খুবই সামান্য।

প্রশ্নোত্তর পর্বে এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে লেনদেনের জটিলতার বিষয়টি উঠে আসার কারণে সরকার অর্থ পরিশোধসহ বিভিন্ন দিক খতিয়ে দেখছে। রাজ্য সভায় তিনি জানান, সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিদের নিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ এই বিষয়গুলো খতিয়ে দেখার দায়িত্বে রয়েছে।

রাশিয়ার কাছ থেকে তেল আমদানির বিষয়ে জয়শঙ্কর বলেন, রাশিয়ার কাছ থেকে আমরা অল্প পরিমাণ তেল আমদানি করি। আমাদের মোট আমদানির এক শতাংশেরও কম। অনেক দেশ রাশিয়ার কাছ থেকে আমাদের তুলনায় ২০ গুণ বেশি আমদানি করে। রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতে ভারতকে ঘিরে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে তিনি বলেন, আমাদের আশেপাশে অনেক কিছু ঘটছে এবং আমরা সতর্কভাবে পর্যবেক্ষণ করছি।

সংঘাতে ভারতের অবস্থানের বিষয়ে জয়শঙ্কর বলেন, এটি আমাদের সমস্যা নয়- এমন অবস্থান আমরা নেইনি। আমাদের অবস্থান হলো আমরা শান্তি চাই। যখন প্রধানমন্ত্রী রাশিয়া ও ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ফোনালাপ করেছেন তখনকার উদ্দেশ্য ছিল আমাদের শিক্ষার্থীদের ফিরিয়ে আনা। কিন্তু আরও দীর্ঘ আলোচনাও ছিল, কী করলে আমরা শত্রুতা বৃদ্ধি ঠেকাতে এবং সংলাপ ও কূটনীতিতে ফিরে আসতে পারি তা নিয়ে। আমি মনে করি মনোভাব অনেক দেশের রয়েছে। আমরা এই অবস্থান নিয়েছি দৃঢ়ভাবে।

রাজ্য সভায় জয়শঙ্কর জানান, আন্তর্জাতিক সব ঘটনাবলীর ওপর নজর রাখছে সরকার। এসব অগ্রগতির সঙ্গে মিলিয়ে ভারত নিজের জাতীয় স্বার্থ রক্ষার কৌশল নির্ধারণ করছে। রাশিয়া-ইউক্রেন সংকটে বাণিজ্যের বিষয়ে তিনি বলেন, ভারতের পররাষ্ট্রনীতি জাতীয় স্বার্থের ভিত্তিতে নির্ধারিত হয়। আমাদের পরিচালিত করে আমাদের ভাবনা, দৃষ্টিভঙ্গি ও স্বার্থ। তাই, ইউক্রেন পরিস্থিতির সঙ্গে বাণিজ্যকে মিলিয়ে ফেলার কোনও প্রশ্ন নেই।

রাজ্য সভাকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ইউক্রেন ইস্যুতে ভারতের অবস্থান ছয়টি নীতির ভিত্তিতে পরিচালিত হচ্ছে। প্রথমত, ভারত শান্তির পক্ষে। তাই অবিলম্বে সহিংসতা ও শত্রুতা বন্ধ চায়।  দ্বিতীয়ত, ভারত মনে করে সংলাপ ও কূটনীতির পথে ফিরে আসা ছাড়া অন্য কোনও উপায় নেই। তৃতীয়ত, ভারত জাতিসংঘ চার্টার এবং সব দেশের ভূখণ্ডগত অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্বকে শ্রদ্ধা করে। চতুর্থত, ভারত সংঘাত পরিস্থিতিতে মানবিক সহযোগিতা নিশ্চিত করার আহ্বান জানায়। পঞ্চমত, ভারত মানবিক সহযোগিতা করছে। এখন পর্যন্ত ৯০ টন মানবিক সহযোগিতা দেওয়া হয়েছে এবং ওষুধসহ আরও সহযোগিতা দিতে চাইছে।  সর্বশেষ নীতি হলো, রাশিয়া ও ইউক্রেনের নেতার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে ভারত। দুই দেশের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নিজেই কথা বলেছেন।

ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাজ্য সভাকে আরও জানান, ১৮টি দেশের ১৪৭ জন নাগরিকসহ ২২ হাজার ৫০০ ভারতীয় নাগরিককে নিরাপদে ইউক্রেন থেকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর