বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ১০:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সৌদি আরবে পৌঁছেছেন ১৫ লাখের বেশি বিদেশি হজযাত্রী বৃষ্টিতে ভেসে গেলো নেপাল-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ, সুপার এইটে দক্ষিণ আফ্রিকা বেনজীরের আরো সম্পত্তি ও টেলিভিশন ক্রোকের নির্দেশ বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটারে গ্রাহকদের ভোগান্তি, তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের দেশের কারাগারে ৩৬৩ বিদেশি, বেশি ভারতের ছয় অঞ্চলে তাপপ্রবাহ, অস্বস্তিকর গরম থাকতে পারে কয়েকদিন কুয়েতে শ্রমিকদের আবাসিক ভবনে আগুন, নিহত ৪১ ড. ইউনূসের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে: দুদক পিপি ব্রিকসে বাংলাদেশ যুক্ত হলে সহযোগিতার নতুন দুয়ার খুলবে তারেকসহ পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী

বৈশ্বিক অর্থনীতিতে ঝড়ের আভাস

ভয়েসবাংলা ডেস্ক / ৩৯২ বার
আপডেট : শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর, ২০২১

বৈশ্বিক অর্থনীতিতে ঝড়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। করোনাভাইরাসের বিধিনিষেধ প্রত্যাহারের পর এখন সাপ্লাই চেইনে দেখা দিয়েছে স্বল্পতায় টোকিওর ‘বিফ বোল’ থেকে শুরু লন্ডনের ‘ফ্রাইড চিকেন’ বিশ্ব অর্থনীতিতে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির পদধ্বনী শোনা যাচ্ছে, ইতোমধ্যে এর আঁচ পেতে শুরু করেছেন ভোক্তারা। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মী, চালান ও কারখানার বিদ্যুতের জন্য জ্বালানি সংকটে ভুগছে। যা অর্থনীতির পুনরুদ্ধারকে ফেলেছে হুমকির মুখে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন এ তথ্য উঠে এসেছে।

ব্রিটেনের বৃহত্তম মুরগির মাংস উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, দেশটিতে ২০ বছর পর সস্তা খাবারের ইতি ঘটতে চলেছে। এক অঙ্কের খাবারের দাম উঠতে পারে দুই অঙ্কে। টু সিস্টার গ্রুপের মালিক রঞ্জিত সিং বোপারান বলেন, তিন পাউন্ড দিয়ে চার সদস্যের পরিবারের খাবার নিশ্চিত করার দিন শেষ হতে চললো। গুদামে শ্রমিক, ট্রাকচালক ও কসাইয়ের স্বল্পতা এমন সময় দেখা দিয়েছে যখন ব্রেক্সিট ও করোনা মহামারি নিয়ে জটিলতায় আছে বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম অর্থনীতিটি। ব্রিটেনের অর্থনীতিতে পড়ছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের তীব্র চাপও। সরবরাহে বিঘ্ন এড়াতে বিশ্বের বৃহত্তম ফার্নিচার ব্র্যান্ড আইকিয়া এখন নিজেই জাহাজ ভাড়া করছে, কন্টেইনার কিনছে এবং নতুন রুটে পণ্য চালান করছে।

কোম্পানিটির প্রধান নির্বাহী জন আব্রাহামসন জানান, তার ধারণা এই সংকট ২০২২ সাল পর্যন্ত গড়াবে। সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো চীন থেকে পণ্য নিয়ে আসা। দেশটিতে তাদের এক-চতুর্থাংশ পণ্য তৈরি হয়। সবচেয়ে বেশি পণ্য স্বল্পতা দেখা দিয়েছে তাদের উত্তর আমেরিকার দোকানগুলোতে, এরপরে রয়েছে ইউরোপ।

যুক্তরাষ্ট্রে বুধবার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বেসরকারি খাতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন, পণ্য আটকে পড়া ঠেকাতে সহযোগিতা করার জন্য। যা দেশটিতে ছুটির দিনে পণ্য সরবরাহ হুমকির মুখে ফেলে দিচ্ছে।

বাইডেন জানান, লস অ্যাঞ্জেলেস বন্দর লং বিচ বন্দরের সঙ্গে যৌথভাবে ২৪ ঘণ্টায় ৫ লাখ কন্টেইনার নামানোর কাজ করবে। ওয়ালমার্ট, টার্গেট ও বড় বিক্রেতারাও জানিয়েছে, তারা দিনরাত কাজ করবে। কম প্রবৃদ্ধির কারণে জাপানেও গত দশকে বেতন ও মজুরি বাড়েনি। ভোক্তা ও ব্যবসায়ীরা কফি ও বিল বোল-এর মতো মৌলিক পণ্যের দাম বাড়ায় ধাক্কা খেয়েছেন।

অর্থনীতিবিদ ও নীতি নির্ধারকরা আশঙ্কা করছেন, আগামী মাসগুলোতে মূল্যবৃদ্ধির প্রতিফলন পাওয়া যেতে পারে।স্পেন, আয়ারল্যান্ড ও সুইডেনে ১৩ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতি থাকায় দেশগুলোর কেন্দ্রীয় ব্যাংক সতর্ক অবস্থানে আছে। ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিন ল্যাগার্দে বারবার এই পরিস্থিতিকে সাময়িক দাবি করেছেন। ইউরো অঞ্চলে মূল্যস্ফীতি এই বছরের শেষের দিকে ৪ শতাংশ ছুঁতে পারে। ইসিবি’র টার্গেটের তুলনায় যা দ্বিগুণ। অনেক অর্থনীতিবিদ আশঙ্কা করছেন, ২০২২ সাল জুড়ে মূল্যস্ফীতি এমন থাকতে পারে।

তীব্র শীতের আশঙ্কা

বিদ্যুৎ সরবরাহ কমে আসায় বিশ্বের কিছু অঞ্চলে শীতের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। চীনে কয়লার দাম রেকর্ড মাত্রায় বেড়েছে। বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোও মজুত বাড়াচ্ছে। ভারতে রাষ্ট্রীয় কোম্পানি কোল ইন্ডিয়া জানিয়েছে, সাময়িক সময়ের জন্য তারা বিদ্যুৎকেন্দ্র ছাড়া কাউকে কয়লা দিচ্ছে না। চীনেরও বিদ্যুৎ সংকটের কারণ কয়লার স্বল্পতা ও জ্বালানির উচ্চমূল্য। এতে কারখানায় উৎপাদনের চাহিদা থাকলেও তা বন্ধ রাখা হয়েছে। এমনকি অ্যাপলের মতো কোম্পানিও পণ্য উৎপাদন স্থগিত রেখেছে।

জ্বালানির মূল্য কমে আসার ইঙ্গিত এখনও স্পষ্ট নয়। অপরিশোধিত তেলের দাম প্রতি ব্যারেল ৮৪ ডলার ছোঁয়ার পথে। শীতে উষ্ণতার জন্য প্রাকৃতিক গ্যাসের বদলে তেলের প্রতি মনোযোগী হওয়ার প্রবণতা থেকেও বাড়ছে তেলের দাম। ইন্টারন্যাশনাল এনার্জি এজেন্সি জানিয়েছে, তেলের চাহিদা প্রতিদিন ৫ লাখ ব্যারেল বাড়তে পারে।

শীর্ষ ইকনোমিক ইন্সটিটিউটগুলো ২০২১ সালের জন্য জার্মানির প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস কমিয়েছে। ইউরোপের বড় অর্থনীতির প্রবৃদ্ধিও ৩.৭ শতাংশের বদলে ২.৪ শতাংশ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সিঙ্গাপুরের দুই বিদ্যুৎ সরবরাহকারী ব্যবসা ছাড়ছে এবং অন্তত অপর তিনটি কোম্পানি নতুন ক্রেতা নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে।

ডাচ নেভিগেশন ও ডিজিটাল ম্যাপিং কোম্পানি টমটম সতর্ক করে বলেছেন, গাড়ি খাতে সাপ্লাই চেইনের সমস্যা ২০২২ সাল পর্যন্ত গড়াতে পারে। কোম্পানিটির চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার টাকো টাইটুলায়ের বলেন, সামগ্রিকভাবে আমরা সবাই সাপ্লাই চেইন ইস্যুকে হালকাভাবে নিয়েছি, বিশেষ করে সেমিকন্ডাক্টার স্বল্পতাকে। বিশ্বজুড়ে সেমিকন্ডাক্টর চিপের স্বল্পতার কারণে মহামারি কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টায় থাকা গাড়ি নির্মাতা আবারও উৎপাদন বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে।

ইতালিয়ান-আমেরিকান গাড়ি নির্মাতা সিএনইচ ইন্ডাস্ট্রিয়াল বুধবার জানায়, সাময়িক সময়ের জন্য তারা বেশ কয়েকটি ইউরোপীয় কৃষি, বাণিজ্যিক ও পাওয়ারট্রেন উৎপাদন কারখানা বন্ধ করে দিয়েছে। যন্ত্রপাতি কিনতে সমস্যার কারণে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। তবে চাহিদা বেড়ে যাওয়া অনেকের জন্য সুযোগ হিসেবে হাজির হয়েছে। বিশ্বের বৃহত্তম কন্ট্রাক্ট চিপ উৎপাদনকারী তাইওয়ানের টিএসএমসি বছরের তৃতীয়ার্ধে প্রায় ১৪ শতাংশ মুনাফা অর্জন করেছে। বৈশ্বিক চিপ সংকট কাটিয়ে উঠতে টিএসএমসি ও তাইওয়ান মূল কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। অবশ্য তাইওয়ান নিজেও স্মার্টফোন, ল্যাপটপ ও ভোক্তা যন্ত্রপাতি উৎপাদনে সংকটে পড়েছে।

টয়োটা মোটর করপোরেশনের মতো কিছু কোম্পানি পুনরায় উৎপাদন শুরু করতে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। জাপানি গাড়ি নির্মাতা কোম্পানিটি আশা করছে মহামারিতে আটকে যাওয়া চালানগুলো হয়ত ডিসেম্বরে সরবরাহ করতে পারবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর