বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৬:২৩ পূর্বাহ্ন

বর্তমান সমিতির এক ব্যক্তির পলিটিক্স, নোংরামির কারণে আজকে আমি ভিকটিম: পপি

ভয়েসবাংলা প্রতিবেদক / ২৪৪ বার
আপডেট : বুধবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২

নানা রহস্য ছড়িয়ে অবশেষে আড়াল ভাঙলেন পপি। তবে সরাসরি নয়, ফিরলেন ভিডিও বার্তা দিয়ে। না নিজের সন্তান-সংসার নিয়ে কোনও রহস্য উন্মোচন করেননি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া এই অভিনেত্রী। বরং প্রকাশ করলেন এফডিসি ও শিল্পী সমিতি নিয়ে তার একবুক অভিমানের কথা। বললেন, ভেবেছিলাম আর কখনোই ক্যামেরার সামনে আসবো না। কিন্তু একজন শিল্পী হিসেবে দায়বদ্ধতা থেকে কিছু কথা না বললেই নয়। এই ভেবেই আজ আপনাদের সামনে এসেছি।

বুধবার দুপুরে হঠাৎ করেই ফেসবুক ও ইউটিউবে পপির একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। অনুমান করা যায়, অন্তর্ধানে থেকেই ভিডিওটি পপি নিজ বাসা থেকে প্রকাশ করেছেন। নিজেকে এভাবে আড়াল করা প্রসঙ্গে পপি ভিডিও বার্তায় বলেন, আমার মতো শিল্পী যে তিন তিনবার ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে, এই আমার সদস্য পদ বাতিলের চিঠি দেওয়া হয়েছে। এতদিন ধরে কাজ করার পর এটা একজন শিল্পীর জন্য কতটুকু অপমানের আমি বুঝতে পারি। আমার মতো শিল্পীরা যারা ভিকটিম হয়েছেন, ১৮৪ জন শিল্পী যারা আছেন, আমি তাদের কষ্টটাও বুঝতে পারি। তারাও আমার কষ্টটা বুঝতে পারেন। এই নোংরামির জন্য, আমার মানসম্মানের ভয় ছিল, আমার জানের ভয় ছিল। সবকিছু মিলে আমি নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছি।

ভিডিওর শুরুতে পপি বলেন, শিল্পীবৃন্দ ও আমার যারা সহকর্মী আছেন তাদের সকলকে জানাচ্ছি অনেক অনেক শুভেচ্ছা, ভালোবাসা এবং সালাম। আশা করি যে যেখানে আছেন, ভালো আছেন, সুস্থ আছেন। আর এই করোনার মধ্যে সুস্থ থাকাটা জরুরি। সর্বপ্রথম আমাদের শ্রদ্ধেয় বড় ভাই একুশে পদকসহ একাধিক পদকপ্রাপ্ত ও নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের একক পৃষ্ঠপোষক, জনগণের কাছে পরীক্ষিত সৈনিক ইলিয়াস কাঞ্চন, যিনি একজন সফল অভিনেতা-প্রযোজক ও পরিচালক। সঙ্গে আছেন আমার বোন নিপুণ, যার মনটা অনেক বড়। আরও আছেন আমার বন্ধু, আমার কলিগ, আমার হিরো রিয়াজ।

নিজের ফিরে আসা প্রসঙ্গে এই নায়িকা বলেন, দীর্ঘ ২৬ বছর এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার চেষ্টা করেছি। দেশে-বিদেশে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করার জন্য অনেক কাজ করেছি। তিন তিনবার ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছি। আজকে অনেক কষ্ট নিয়ে কথা বলতে এসেছি। আপনাদের অনেকের প্রশ্ন, আমি কোথায়? আমি আছি, আছি আপনাদের মাঝে। হয়তো ভাগ্যে থাকলে ফিরবো আবারও কাজে।

নিজেকে ভিকটিম দাবি করে পপি বলেন, বর্তমান সমিতির একটিমাত্র ব্যক্তির কারণে, তার পলিটিক্স, তার নোংরামি এবং অনেক রকমের অপকর্মে অসহযোগিতা করার কারণে আমাকে বারবার অপমানিত হতে হয়েছে। শুধু আমি না, রিয়াজ, ফেরদৌস, পূর্ণিমা, আমাদের সকলকে ব্যবহার করা হয়েছে। আমাদের কাঁধে বন্দুক রেখে সে এই চেয়ারটিতে বসেছে এবং বিভিন্ন রকম অপকর্ম করার চেষ্টা করেছে, যেখানে আমি বা আমরা সায় দিইনি। যার কারণে আজকে আমি ভিকটিম। আমাকে বারবার অপমানিত হতে হয়েছে।

ক্যামেরার সামনে ফেরার আশাবাদ জানিয়ে অভিনেত্রী বলেন, আমার সদস্য পদ বাতিলের চিঠিটি এখনও আছে। আমি নিজেকে সরিয়ে নিয়েছি আপনাদের কাছ থেকে, এই নোংরা পরিবেশ থেকে। যদি পরিবেশ কখনও ভালো হয় তবে ফিরবো। এই নোংরা মানুষগুলো যদি সরে যায় তখনই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করবো। ভোটারদের উদ্দেশে পপি বলেন, যে ভুলটা আমরা করেছি, এবারের ইলেকশনে আপনারা সেই ভুলটা করবেন না। সঠিক মানুষ পছন্দ করে ভোটটা দেবেন, যেন আমাদের চলচ্চিত্র বাঁচে।

গত বছরের মার্চ মাস থেকে নিখোঁজ পপি। এরমধ্যে বিয়ে ও সন্তান হওয়ার খবর মিললেও তার কোনও সত্যতা এখনও মেলেনি। অবশেষে আত্মগোপনে যাওয়ার প্রায় এক বছরের মাথায় এই ভিডিওর মাধ্যমে পাওয়া গেলো ‘কুলি’-খ্যাত এই নায়িকাকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর