শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন

নারায়ণগঞ্জে আবারও নৌকার মাঝি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভি

ভয়েসবাংলা প্রতিবেদক / ১০৩ বার
আপডেট : শনিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২১

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ নৌকার মাঝি নির্ধারণ করেছে বর্তমান মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে, যিনি ২০১৬ সালের ২২ ডিসেম্বর নির্বাচনে একই প্রতীক নিয়ে জয়ী হয়েছিলেন। আগামী ১৬ জানুয়ারিতে ওই সিটি নির্বাচনে নৌকার হয়ে ভোটযুদ্ধে লড়বেন তিনি। এ সিটিতে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ১৫ ডিসেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই ২০ ডিসেম্বর। আর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৭ ডিসেম্বর।

২০০৩ সালে তিনি প্রথম বিলুপ্ত পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। আর সিটি করপোরেশন গঠনের পর ২০১১ সালের ৩০ অক্টোব প্রথম নারী মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন।

শুক্রবার রাতে দলীয় প্রতীক ঘোষণার খবর পেয়ে শহরে মিছিল বের করেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। মেয়র পদের জন্য নারায়ণগঞ্জ থেকে আইভী ছাড়াও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, জেলার সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল ও মহানগরের সহসভাপতি চন্দন শীল দলের মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছিলেন।

আওয়ামী লীগ মনোনয়ন বোর্ডে উপস্থিত একাধিক নেতা বলেন, নারায়ণগঞ্জে এই মুহূর্তে সবচেয়ে শক্ত ও পরিচ্ছন্ন প্রার্থী মেয়র আইভী। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েই দ্বিতীয়বার তার ওপর আস্থা রেখেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনার উদ্ধৃতি দিয়ে বৈঠকে উপস্থিত এক সদস্য বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, নেত্রী মনে করেন দায়িত্বে থেকে জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছেন আইভী। নারী রাজনীতি ও জাতীয় রাজনীতিতে আইভী ইতিবাচক ভাবমূর্তি অর্জন করতে পেরেছেন এবং তা ধরে রাখতে পেরেছেন। তাই আবারও নৌকা দেওয়া হয়েছে তাকে। তাছাড়া তিনি সিটিং মেয়র, সুনামের সঙ্গে কাজ করেছেন। নারায়ণগঞ্জের মানুষের কাছেও এই মুহূর্তে সবচেয়ে জনপ্রিয় আইভী।

এই বিষয়ে মেয়র সেলিনা হোসেন আইভী বলেন, আবারও আমার ওপর আস্থা রাখায় আমি আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর কৃতজ্ঞ। আমার কাছে সকল কিছুর উৎস নারায়ণগঞ্জের জনগণ। এই জনগণকে নিয়ে ১৬ জানুয়ারি নির্বাচনে নেত্রীকে বিজয় উপহার দেবো।

আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও মনোনয়ন বোর্ড সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক বলেন, যোগ্যতার মানদণ্ডে আইভী এগিয়ে থাকায় তাকে আবার নৌকা দেওয়া হয়েছে। কোনও প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়ার আগে আমরা ওই প্রার্থীর ব্যাপারে তিনটি বিষয় ভালো করে দেখি—গোয়েন্দা সংস্থার পাঠানো রিপোর্ট, রাজনৈতিক দক্ষতা ও নেতাকর্মীদের সঙ্গে সম্পর্ক। সব বিষয়েই এগিয়ে রয়েছেন মেয়র আইভী। দলের পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তিও বজায় রেখেছেন তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর