সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
আর্জেন্টিনার ঐতিহাসিক হ্যাটট্রিক শিরোপার হাতছানি কোপায় আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়া ও ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ ইংল্যান্ড-স্পেন মুখোমুখি যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ গুপ্তহত্যার প্রচেষ্টা নেপালের নতুন প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি তিন হাজার বাংলাদেশি কর্মী নেবে ইইউভুক্ত চার দেশ : পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় রপ্তানি ট্রফি প্রদান দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে না : প্রধানমন্ত্রী ট্রাম্পের ওপর হামলায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নিন্দা রাষ্ট্রপতির কাছে স্মারকলিপি জমা দিলেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ট্রাম্পের হামলাকারীর নাম পরিচয় জানালো এফবিআই

টেস্ট ক্রিকেট থেকে মাহমুদউল্লাহর অবসর ঘোষণা

ভয়েসবাংলা প্রতিবেদক / ১২৯ বার
আপডেট : বুধবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২১

টেস্ট ক্রিকেট থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অবশ্য টেস্ট ক্রিকেট থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার কথা আগেও বলেছিলেন তিনি। দীর্ঘ ফরম্যাটের এই ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেও বাকি দুই ফরম্যাটে খেলা চালিয়ে যাওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

বুধবার রাতে বিসিবি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে মাহমুদউল্লাহ  জানিয়েছে, টেস্ট থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অবসর নিয়ে ফেলেছেন। এক বিবৃতিতে মাহমুদউল্লাহ বলেন, আমি আনুষ্ঠানিকভাবে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করছি। টেস্টে আমার প্রথম ও শেষ ম্যাচ দুটিতেই আমি ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছি। আলহামদুলিল্লাহ, টেস্ট ক্রিকেটে আমার যাত্রা অনেক ভালো ছিল। লাল বলের এ যাত্রায় সহায়তা করার জন্য আমার পরিবার, সতীর্থরা, কোচরা ও বিসিবিকে ধন্যবাদ জানাই। সবসময় ভালোবাসা ও সাপোর্টের জন্য আমি সমর্থকদেরও ধন্যবাদ জানাই। ইন শা আল্লাহ বাংলাদেশের হয়ে সাদা বলের ক্রিকেটে আমি খেলে যাব। ’

দীর্ঘ ১৬ মাস টেস্ট ক্রিকেটের বাইরে থাকার পর গত জুলাইয়ে হারারে টেস্টে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দেড়’শ রানের অপরাজিত এক ইনিংস খেলেন তিনি। তারপরই অবশ্য নিজের অবসরের কথা সতীর্থদের জানিয়ে দেন টাইগারদের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। সেই ম্যাচসেরার পুরস্কারও পান মাহমুদউল্লাহ। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলা ম্যাচটিই মাহমুদউল্লাহর ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট বলে গণ্য করা হবে।

মাহমুদউল্লাহর অবসরের কথা বাংলাদেশে ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কাছে পৌঁছালে তারা সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের কথা জানান। তবে এতে সাড়া দেননি সাইলেন্ট কিলার। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে তার নেতৃত্বে দলের ভরাডুবির পর এবার আনুষ্ঠানিকভাবে নিজের অবসরের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলেন তিনি।

২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় মাহমুদউল্লাহর। এরপর অনেক চড়াই-উতরাই পেরিয়ে বাংলাদেশ দলে থিতু হতে হয় তাকে। দেশের হয়ে এ পর্যন্ত ৫০টি টেস্ট খেলে পাঁচটি শতক ও ১৬টি অর্ধশতক হাঁকিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। ৩৩.৪৯ গড়ে করেছেন ২৯১৪ রান। টেস্টে বাংলাদেশের ষষ্ঠ সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক রিয়াদ। পার্ট টাইম বোলিংয়ে নামের পাশে আছে ৪৩টি উইকেটও। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে তিনি ৬টি টেস্টে দলকে নেতৃত্বও দিয়েছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ

এক ক্লিকে বিভাগের খবর